You are visiting Premium Sweets Bangladesh. Click here to go to  
হরেক রকম কাবাবের প্লাটার শীতের আমেজে অতুলনীয়। আসুন সপরিবারে বা অর্ডার করুন টেকওয়ে। প্রিমিয়াম সুইটস্ গুলশান ২। গুলশান ১। উত্তরা রবীন্দ্র সরণী ৭নং সেক্টর বা উত্তরা ৬নং সেক্টরে অবিন্তা টাওয়ার ব্রান্চে।
Premium Sweets > Blog
ফেরেনা বৃদ্ধ বাবার ইফতারের সেই অনুভূতি..
ওকভিল থেকে শেরওয়ে গার্ডেন, ইটোবিকো, টরোন্টো, ক্রুজ- কন্ট্রোলে গাড়ী। ড্রাইভ করতে করতেই কথা বলছিলাম, স্কুল-কলেজ-ভার্সিটির প্রিয় বন্ধু-বান্ধবদের সাথে কনফারেন্স কলে। সহজ সরল প্রবাসী বাংলাদেশী প্রফেশনালস সব। জীবিকার প্রয়োজনে কেও প্যারিস, কেও মিলান কেও অকল্যান্ড, তান্জিয়ার্স, এলএ, অশোয়া, টোকিও দুবাই। ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে সাসেক্স, ব্রিকলেন আর মালাক্কায়।
কনফারেন্স কলদাতা প্রিয় বন্ধুর বসবাস ছবির মতো শহর নরওয়েতে ।আটলান্টিকের উপর ওয়ার্ল্ডস মোষ্ট ডেন্জারাস বাট মোস্ট সিনিক রোড খ্যাত ক্রিস্টিয়ানসান্ড আর মোল্ডের সীমান্তে। কাজ করেন সাতানব্বই কিলোমিটার দীর্ঘ আটলান্টিক ওশেন রোডের ৮৯১ মিটার লম্বা আটটি ব্রিজের ইমার্জেন্সী মেনটেনান্সে। প্রতিষ্ঠিত ইন্জিনিয়র। সবার জানা ওঁর ওখানে আবহাওয়া বড়ই আনপ্রেডিক্টেবল। স্নো-স্টর্ম আর ব্লিজার্ড নিত্যনৈমিত্তিক । হাস্যজ্জোল সুর্য সহসাই হারায় হেভী স্নো স্টর্মে। রোদ-হাসি-ঝড় এই নিয়েই তো জীবন। ওর ওখানে গেলে বোঝা যায় প্রকৃতির খেলা, খুবই কাছে থেকে। এই হাসি এই মেঘ। মুহুর্তেই শান্ত আটলান্টিকের ভীতিকর রুদ্ররুপ।
কথা হচ্ছিল দেশ, বর্তমান জীবন আর ফেলে আসা শৈশবের নানা স্মৃতি নিয়ে। বললাম কাল থেকে টরোন্টোতে রোজা। মুহুর্তেই সবাই যেন স্কুলের দিনগুলোতে ! আমাদের সময় রোজার দিন যেমনই যেত, সন্ধে মানেই ফ্রীডম। ছোলা মাখানো মুড়ি, পেয়াজু, জিলেপী !! সন্ধের পর সাড়া বছরই কারফিউ, সবার বাসায়ই কমন । রোজায় তো স্কুল কলেজ ভার্সিটি ছুটি । মধ্যবিত্ত পরিবারে, আমাদের স্বাধীনতাই ছিল ইফতারের পর পর তারাবীর জন্যে বেড় হওয়ার সুযোগ, প্রায় মাঝরাতে ঘরে ফেরা.. । বাবার বাজার আর মায়ের সারাদিন মানেই ভাজা-পোড়া, বেগুনী, পাকোড়া, হালিম, সরবত !
বন্ধুরা প্রায় সবাই আড়াই-তিন দশক দেশের বাহিরে। কলটা করেছিল বর্তমানে নরওয়েজীয়ান, বারোবছরের সহপাঠী শৈশব-কেশরের বন্ধু, স্কান্ডিনেভিয়ান ওয়াইফ। সবচেয়ে প্রানবন্ত দুর্দান্ত ছিল সেই, আমাদের মাঝে। এক কলে সবাইকে নিয়ে গেল ফেলে আসা উজ্জল কৈশরে।
শুধু তার আফসোস, মা বেঁচে নেই, বাবা তার কাছেই। রোজা এলেও বিদেশী ছেলে বৌয়ের ফ্রাইড চিকেন আর মিটবলে ফেরেনা বৃদ্ধ-বাবার ইফতারের সেই অনুভূতি..।
May this Ramadhan bring blessings for you and your family and may Almighty except our prayers, fasting, sadaqah and all charities.
Wish you and your family a very blessed month of Ramadhan.
প্রিমিয়াম সুইটস্ হেডকোয়ার্টার
মিসিসাগা, অন্টারিও।
৫ই জুন ২০১৬
No Comment Posted Yet, Be the first one to Leave a comment